ভাই গিরিশচন্দ্র সেন

ভাই গিরিশচন্দ্র সেন বর্তমান নরসিংদী জেলার পাঁচদোনা গ্রামে এক বিখ্যাত দেওয়ান বৈদ্যবংশে জন্মগ্রহণ করেন। গিরিশচন্দ্রের পিতা ছিলেন মাধবরাম সেন এবং পিতামহ ছিলেন রামমোহন সেন। গিরিশচন্দ্ররা ছিলেন তিন ভাই। ঈশ্বরচন্দ্র সেন, হরচন্দ্র সেন এবং সর্বকনিষ্ঠ গিরিশচন্দ্র সেন। ভাই গিরিশচন্দ্র সেনের পরিবার ছিল অত্যন্ত গোঁড়াপন্থি। পরিবারে সনাতন ধর্মের আচরণ প্রয়োজনের তুলনায় একটু বাড়াবাড়ি রকমভাবেই মেনে চলা হতো।

খ্যাতিমান ঔপন্যাসিক, প্রাবন্ধিক, কবি, নাট্যকার, গবেষক আলাউদ্দিন আল আজাদ

আলাউদ্দিন আল আজাদ ১৯৩২ খ্রিস্টাব্দের ৬ মে নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলার রামনগর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা : গাজী আব্দুস সোবহান; মাতা : মোসাম্মাৎ আমেনা খাতুন; স্ত্রী : জামিলা আজাদ। প্রবেশিকা : নারায়ণপুর শরাফতউল্লাহ উচ্চ ইংরেজি বিদ্যালয়, রায়পুরা (১৯৪৭)। উচ্চ মাধ্যমিক (কলা) : ইন্টারমিডিয়েট কলেজ (১৯৪৯) তিনি ১৯৫৩ ও ১৯৫৪ খ্রিস্টাব্দে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা বিভাগ

ঊনসত্তরের গনআন্দোলনে শহীদ আসাদের আত্মত্যাগ

শহীদ আসাদ ১০ই জুন, ১৯৪২ইং সালে নরসিংদী জেলার শিবপুর থানার ধানুয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বড় ভাইয়ের নাম ইঞ্জিনিয়ার রশিদুজ্জামান। শিবপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৬০ সালে মাধ্যমিক শিক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে উচ্চ শিক্ষার্থে জগন্নাথ কলেজ (বর্তমান জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়) ও মুরারী চাঁদ মহাবিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। ১৯৬৩ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে ভর্তি হয়ে ১৯৬৬ সালে বি.এ

আবদুল কাদির মোল্লা সিটি কলেজের ধারাবাহিক সাফল্য

সাফল্যের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে এইচএসসি পরীক্ষায় ঢাকা বোর্ডে আবারও দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে নরসিংদীর আবদুল কাদির মোল্লা সিটি কলেজ। এ বছর এই কলেজ থেকে ৩৭৮ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সবাই পাস করেছেন। জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৩৩৩ জন। ২০১২ সালেও এই কলেজ শতভাগ পাসসহ বোর্ডে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে। গতকাল শনিবার এইচএসসি পরীক্ষার ফল ঘোষণার পর

সেক্টর কমান্ডার নুরুজ্জামান

ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল নুরুজ্জামান ১৯৩৮ সালের ডিসেম্বর মাসে নরসিংদী জেলার রায়পুরা থানার সায়দাবাদ গ্রামে জন্মগ্রহন করেছেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৫৯ সালে বিএ অনার্স শেষ করেন। ১৯৬০ সালে তিনি এমএ অধ্যয়নরত অবস্থায় পাকিস্থান সেনাবাহিনীতে সেকেন্ড লেফটেনেন্ট হিসেবে যোগদান করেন। তিনি আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার আসামী ছিলেন। ৩৫ আসামীর মধ্যে তিনি ছিলেন ২৮ নম্বরে। ১৯৬৯ সালে তিনি মামলা

বীর শ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান

মতিউর রহমান ১৯৪১ সালের ২৯ অক্টোবর পুরান ঢাকার ১০৯ আগা সাদেক রোডের পৈত্রিক বাড়ি “মোবারক লজ”-এ জন্মগ্রহণ করেন। মতিউর রহমান এর পৈতৃক বাড়ি নরসিংদী জেলার রায়পুরা থানার রামনগর(বর্তমান মতিনগর ) গ্রাম। ৯ ভাই ও ২ বোনের মধ্যে মতিউর ৬ষ্ঠ। তাঁর বাবা মৌলভী আবদুস সামাদ, মা সৈয়দা মোবারকুন্নেসা খাতুন। ঢাকা কলেজিয়েট স্কুল থেকে ষষ্ঠ শ্রেণী পাস করার পর সারগোদায় পাকিস্তান বিমান বাহিনী পাবলিক স্কুলে ভর্তি হন।

স্কুটার গফুর

  ছোটো খাটো দেহ কিন্তু দৌড়ে ছিলেন অদম্য। পায়ে বল পেতেই ক্ষিপ্রতা নিয়ে ছুটে যেতেন প্রতিপক্ষের ডি-বক্সে। তবে নিজে গোল করে নয়, আনন্দ পেতেন তার পাস দেয়া বল থেকে দলের স্ট্রাইকার গোল পেলে। ষাটের দশকের মাঝামাঝি থেকে একযুগেরও বেশি সময় ঢাকার ফুটবলের আসর মাতানো প্রাক্তন এ ফুটবলারের নাম আব্দুল গফুর ভুইয়া। তবে ফুটবলের জগতে তার